২১শে ফেব্রুয়ারি, ২০১৮ ইং, ৯ই ফাল্গুন, ১৪২৪ বঙ্গাব্দ, ৫ই জমাদিউস-সানি, ১৪৩৯ হিজরী

‘আমি পবিত্র কোরআন শরীফ পড়েছি, ইসলাম ধর্মকে খুব শ্রদ্ধা করি’

ফেব্রুয়ারি ৬, ২০১৮, সময় ৮:১৯ পূর্বাহ্ণ

কলকাতার দক্ষিণ কলকাতার মেটিয়াবুরুজের গার্ডেনরিচ এলাকার কাচ্চি মোড়। সমগ্র এলাকাটিই সংখ্যালঘু মুসলিম অধ্যুষিত। সেই এলাকাতেই এক দলীয় সভায় নিজেকে সংখ্যালঘু মানুষের পৃষ্ঠপোষক বলে দাবি করলেন বিজেপির রাজ্য নেতা জয় বানার্জী।

রাজ্যের বর্তমান শাসকদল তৃণমূল কংগ্রেস মুসলিম তোষণ করে। এই অভিযোগ বারবার করেছে বিরোধী শিবির। যে তালিকায় সবার আগে রয়েছে বিজেপি।

দলনেত্রী মমতা বানার্জীর হিজাব পরে মুসলিম সম্প্রদায়ের ধর্মীয় অনুষ্ঠানে যাওয়া কিনবা ইফতার পার্টির আয়োজন করাকেও বহুবার কটাক্ষ করেছে বিজেপি নেতারা।

বহুবার বিরোধিতা করলেও এবার নিজেই সেই একই পথে হাঁটলেন বিজেপি নেতা জয় বানার্জী। একদিনের সভায় তিনি বলেন, ‘আমি পবিত্র কোরআন শরীফ পড়েছি, ইসলাম ধর্মকে খুব শ্রদ্ধা করি।’

একইসঙ্গে তিনি আরও বলেন, ‘আমি জানি যদি সঠিকভাবে ইসলাম ধর্ম কেউ পালন করে তাহলে সেই ব্যক্তি ৯৫ বছর অবধি কোনও রোগ ছাড়া বাঁচতে পারে।’

নিজেকে মুসলিম সম্প্রদায়ের মানুষদের কাছের লোক প্রমাণ করার জন্য তিনি বলেন, ‘আমি পার্ক সার্কাসের এক সংখ্যালঘু পাড়ায় বড় হয়েছি। আমার দেহরক্ষী, গাড়ির চালক সহ ম্যানেজার সকলেই মুসলিম। আমি তাঁদের সঙ্গেই থাকি এবং খুব স্বাচ্ছন্দ্য বোধ করি।

সংখ্যালঘু সম্প্রদায়ের বিশেষ করে মুসলিমদের উন্নতির জন্য রাজ্যের পূর্বতন তিন ভিন্ন রাজনৈতিক দলের সরকার কিছুই করেনি বলে দাবি করেছেন জয় বন্দ্যোপাধ্যায়।

কংগ্রেস শুধু ভোট ব্যাংকের স্বার্থেই মুসলিমদের ব্যবহার করেছে বলে দাবি করেছেন জয়। সিপিএম এবং তৃণমূলকে আক্রমণ করে তিনি বলেন, “সিপিএমের দেখানো পথেই হাঁটছে তৃণমূল।

তারা সংখ্যালঘু অল্পবয়সী ছেলেদের হাতে অস্ত্র তুলে দিয়ে বলেছে, ‘যাও গিয়ে ভোট লুঠ কর, সন্ত্রাস কর।’ দেশের বিজেপি শাসিত রাজ্যে মুসলিম সম্প্রদায়ের মানুষদের অনেক উন্নতি হয়েছে বলেও দাবি করেছেন তিনি।

সেই সঙ্গে তিনি আরও বলেছেন,’রাজ্যের জেলগুলিতে শতকরা ৮০ ভাগ কয়েদী মুসলিম। বীরভূমে দেখেছি অনেক মুসলিম ছেলে নেতাদের কথায় সন্ত্রাস করতে গিয়ে কবরে চলে গিয়েছে।