২১শে ফেব্রুয়ারি, ২০১৮ ইং, ৯ই ফাল্গুন, ১৪২৪ বঙ্গাব্দ, ৫ই জমাদিউস-সানি, ১৪৩৯ হিজরী

মানববন্ধনে আন্দোলনের নতুন বার্তা দিলেন ফখরুল

ফেব্রুয়ারি ১২, ২০১৮, সময় ১০:৩৬ পূর্বাহ্ণ

বিএনপি চেয়ারপার্সন বেগম খালেদা জিয়ার সাজার পর দলটির শান্তিপূর্ণ প্রতিবাদ কর্মসূচির অংশ হিসেবে ঢাকায় এক মানববন্ধনে নেতা-কর্মী ও সমর্থকদের ঢল নেমেছে। ২০ দলীয় জোটের শরিক দলগুলোর সাথে বৈঠকের পর এদিন বিএনপির মহাসচিব মির্জা ফখরুল ইসলাম আলমগীর আন্দোলনের নতুন বার্তা দেন।

সোমবার জাতীয় প্রেসক্লাবের সামনে মানববন্ধনে অংশ নিয়ে তিনি বলেন, নেত্রী খালেদা জিয়া যতক্ষণ পর্যন্ত কারাগার থেকে মুক্ত না হবেন, ততক্ষণ পর্যন্ত আন্দোলন চলবে। জনগণের শান্তিপূর্ণ এ আন্দোলন থামানো যাবে না।

চেয়ারপার্সন খালেদা জিয়ার বিরুদ্ধে ‘ভিত্তিহীন বানোয়াট’ মামলায় সাজা দেয়ার প্রতিবাদ এবং অবিলম্বে তার নিঃশর্ত মুক্তির দাবিতে ঢাকাসহ সারাদেশে সকাল ১১টা থেকে দুপুর ১২ টা পর্যন্ত শান্তিপূর্ণ মানববন্ধন কর্মসূচি পালন করেছে বিএনপি।

কেন্দ্রীয়ভাবে ঢাকায় জাতীয় প্রেসক্লাবের সামনের রাস্তা, পাশে সচিবালয় মোড় এবং অন্যপাশের কদম ফোয়ারে মোড় পর্যন্ত কয়েক ভাগ হয়ে সারিবদ্ধভাবে মানববন্ধনে অংশ নেন নেতাকর্মীরা।

বিএনপি মহাসচিব ও ২০ দলীয় জোটের সমন্বয়ক মির্জা ফখরুল বলেন, সম্পূর্ণ রাজনৈতিক উদ্দেশ্যে সরকার মিথ্যা ও সাজানো মামলায় খালেদা জিয়াকে সাজা দিয়েছে। নেত্রীকে ছাড়া বিএনপি ও ২০ দলীয় জোট কোন অবস্থাতেই নির্বাচনে যাবো না।

তিনি সরকারকে সতর্ক করে বলেন, খালেদা জিয়া জেলে থাকবেন আর আপনারা ভোট করবেন, তা হবে না। তাই কালক্ষেপণ না করে অবিলম্বে তাকে মুক্তি দিন।

মির্জা ফখরুল ইসলাম আলমগীর বলেন, ৫ জানুয়ারির মতো আর কোন ভোটারবিহীন একতরফা ভোট করতে দেয়া হবে না। শান্তিপূর্ণ আন্দোলনের মাধ্যমে খালেদা জিয়াকে মুক্ত করে দেশে গণতন্ত্র প্রতিষ্ঠা করা হবে।

নেতা-কর্মীরা আগেই কর্মসূচি স্থলে পৌঁছার কারণে সকাল ১০টার দিকেই প্রেসক্লাবের সামনে মানববন্ধন অনুষ্ঠিত হয়। এতে বিশ দলীয় জোট, ও বিভিন্ন পেশাজীবী সংগঠনসহ দলটির হাজার হাজার নেতাকর্মী অংশ নেন। এ সময় তারা স্লোগানে মুখরিত করে তোলে প্রেসক্লাব চত্বর।

মানববন্ধনে বিএনপির কেন্দ্রীয় অনেক নেতা উপস্থিত হন। তাদের সাথে যোগ দেন ২০ দলীয় জোটের শরিক দলগুলোর শীর্ষ নেতারা।

এদিকে বিএনপির মানববন্ধনকে ঘিরে জাতীয় প্রেসক্লাবের সামনে বিপুল সংখ্যক আইনশৃঙ্খলা বাহিনীর সদস্য মোতায়েন করা হয়। তবে তারা এ কর্মসূচিতে কোনো ধরণের বাধা দেননি।

তবে মানববন্ধন শেষে বিএনপির ভাইস চেয়ারম্যান শামসুজ্জামান দুদুকে আটক করেছে রমনা থানা পুলিশ।