সত্যের সন্ধানে আমরা

‘মা আমাকে দিয়ে ঘর মোছাতেন, বাথরুম এ নিয়ে’

0

বলিউড অভিনেত্রী কাজল। ছোটবেলা থেকে মা তনুজা তাকে শিখিয়েছিলেন, কোনও কাজই বড় বা ছোট নয়। মা তাকে দিয়ে ঘর মোছাতেন, বাথরুম পরিষ্কার করাতেন।

কাজল জানিয়েছেন, তার মা তাকে বলতেন, যদি জীবনে এমন পরিস্থিতি আসে, যখন তোমার কাজ করে দেওয়ার কেউ নেই, তখন তোমাকেই নিজের বাড়িঘরের খেয়াল রাখতে হবে। তিনি মায়ের কথা শুনেছিলেন। আর সব ধরনের কাজ জানা এক অদ্ভূত অনুভূতি দেয় যে কোনও কাজই বড় বা ছোট নয়, সবাইকে সম্মান করা উচিত।

তিনি নিজেও মা হিসেবে তার ছেলেমেয়েকে দিয়ে ঘর ঝাঁট দেওয়ান যাতে তারা বুঝতে পারে, যে যেখানে সেখানে জঞ্জাল ফেলা ঠিক নয়।

নব্বইয়ের দশকের বলিউড কাঁপানো অভিনেত্রী বলেছেন, কাজের প্রতি তার দায়বদ্ধতা এখনও এতটুকু কমেনি। তিনি এমন একটা সময়ের প্রতিনিধিত্ব করেন, যখন সকাল সাতটা থেকে রাত নটা পর্যন্ত প্রতিদিন কাজ করতে হত, এসি রুমে বসে থাকার সুযোগ ছিল না। এভাবে পরিশ্রম করতে করতে বোঝা যায়, যে কর্মই ঈশ্বর। কাজকে সবথেকে বেশি মূল্য দিতেই হবে, তা সবথেকে গুরুত্বপূর্ণ।

শাহরুখ খানের সঙ্গে কাজ করতে সব সময় ভাল লাগে তার। আনন্দ এল রাইয়ের ‘জিরো’ ছবিতে শাহরুখের সঙ্গে একটি বিশেষ দৃশ্যে রয়েছেন কাজল। তার কথায়, শাহরুখ যা করেন, তাতেই নিজের ৩০০ শতাংশ দেন। তিনি এত ভাল অভিনেতা যে তার সঙ্গে কাজ করা সব সময় অত্যন্ত সহজ হয়ে যায়।

জিরোয় কাজল ছাড়াও বিশেষ একটি দৃশ্যে দেখা যাবে রানি মুখোপাধ্যায়কেও। তবে ছবির দুই নায়িকা হলেন অনুশকা শর্মা ও ক্যাটরিনা কাইফ।

যৌনতায় মেতে ওঠার আগে এই কাজগুলি করেন কি?

…..

যৌনতা নিয়ে ছুঁৎমার্গ অনেকটাই কাটিয়ে উঠেছে এ প্রজন্ম। সম্পর্কে এখন শরীরও গুরুত্ব পেতে শুরু করেছে। সামাজিকতার পরোয়া না করে অনেকেই লিভ ইন সম্পর্কে মেতে ওঠেন, অনেকে আবার শুভ পরিণয় পর্যন্তও পৌঁছে যান। তবে সামাজিক স্বীকৃতি থাকুক আর না থাকুক যৌনতা নিয়ে এ দেশের মানুষের ট্যাবু অনেকটাই শিথিল হয়েছে। তবে কেবল শরীরী বিপ্লবের পথে পা বাড়ালেই হবে না তার ভাল-মন্দ দু’টি দিকই জানতে হবে। যৌনতা প্রথমবার হোক বা একাধিকবার কয়েকটা ভাবনা মাথায় রাখতেই হবে।

সুরক্ষা- যৌনতার ক্ষেত্রে এ বিষয়টি মাথায় রাখা অবশ্যই প্রয়োজন। একান্ত সন্তানে জন্ম দিতে না চাইলে অবশ্যই নিরোধ ব্যবহার করবেন। আর যৌনরোগ সম্পর্কে ভালভাবে জেনে রাখবেন। প্রয়োজনে দু-এক মাস অন্তর নিজের ও সঙ্গীর শারীরিক চেকআপ করিয়ে নেবেন।

নিঃশ্বাস- শুরুটা চুম্বনের মাধ্যমেই বেশিরভাগ ক্ষেত্রে হয়ে থাকে। আর এক্ষেত্রে নিঃশ্বাস-প্রঃশ্বাস খুবই গুরুত্বপূর্ণ। সম্পর্ক যতই গভীর হোক আপনি দুপুরে কী খেয়েছেন, তা আপনার সঙ্গীর না জানলেও চলবে। তাই মিলনের আগে অবশ্যই ব্রাশ করে নেবেন।

পরিধান- সবার শরীর কিন্তু সবসময় সাড়া দেয় না। কিন্তু যখন দেয় তখন সময় নষ্ট না করাই বুদ্ধিমানের কাজ। তাই সঙ্গমের আগে এমন পোশাক পরবেন যা সহজেই খোলা যায়। আপনি কিংবা আপনার সঙ্গী দু’জনের ক্ষেত্রেই যেন সে সুবিধা থাকে।

পরিচ্ছন্নতা- অপরিছন্নতাই বেশিরভাগ রোগের কারণ। তা আবার আপনার সঙ্গীর শারীরিক মিলনে উৎসাহ হারানোর কারণও হতে পারে। তাই মিলনের আগে যদি পারেন তো ভাল করে স্নান করে নেবেন। আর গোপনাঙ্গও পরিষ্কার রাখার চেষ্টা করবেন।

শৌচকর্ম- পড়তে একটু আজব লাগলেও এই কাজটি কিন্তু বেশ গুরুত্বপূর্ণ। যৌন সঙ্গমে লিপ্ত হওয়ার আগে অবশ্য শৌচকর্ম করে নেবেন। আবেগের সময় প্রকৃতির ডাক না আসাই ভাল। তাতে যৌনক্রিয়া বিঘ্নিত হতে পারে।

এই পাঁচ উপায়েই আপনার যৌনতা হোক পরমানন্দের। সুস্থ থাকুন, সুস্থ রাখুন। আর মনের মানুষের শরীরকে উপভোগ করুন।

যৌনতা নিয়ে ছুঁৎমার্গ অনেকটাই কাটিয়ে উঠেছে এ প্রজন্ম। সম্পর্কে এখন শরীরও গুরুত্ব পেতে শুরু করেছে। সামাজিকতার পরোয়া না করে অনেকেই লিভ ইন সম্পর্কে মেতে ওঠেন, অনেকে আবার শুভ পরিণয় পর্যন্তও পৌঁছে যান। তবে সামাজিক স্বীকৃতি থাকুক আর না থাকুক যৌনতা নিয়ে এ দেশের মানুষের ট্যাবু অনেকটাই শিথিল হয়েছে। তবে কেবল শরীরী বিপ্লবের পথে পা বাড়ালেই হবে না তার ভাল-মন্দ দু’টি দিকই জানতে হবে। যৌনতা প্রথমবার হোক বা একাধিকবার কয়েকটা ভাবনা মাথায় রাখতেই হবে।

সুরক্ষা- যৌনতার ক্ষেত্রে এ বিষয়টি মাথায় রাখা অবশ্যই প্রয়োজন। একান্ত সন্তানে জন্ম দিতে না চাইলে অবশ্যই নিরোধ ব্যবহার করবেন। আর যৌনরোগ সম্পর্কে ভালভাবে জেনে রাখবেন। প্রয়োজনে দু-এক মাস অন্তর নিজের ও সঙ্গীর শারীরিক চেকআপ করিয়ে নেবেন।

নিঃশ্বাস- শুরুটা চুম্বনের মাধ্যমেই বেশিরভাগ ক্ষেত্রে হয়ে থাকে। আর এক্ষেত্রে নিঃশ্বাস-প্রঃশ্বাস খুবই গুরুত্বপূর্ণ। সম্পর্ক যতই গভীর হোক আপনি দুপুরে কী খেয়েছেন, তা আপনার সঙ্গীর না জানলেও চলবে। তাই মিলনের আগে অবশ্যই ব্রাশ করে নেবেন।

পরিধান- সবার শরীর কিন্তু সবসময় সাড়া দেয় না। কিন্তু যখন দেয় তখন সময় নষ্ট না করাই বুদ্ধিমানের কাজ। তাই সঙ্গমের আগে এমন পোশাক পরবেন যা সহজেই খোলা যায়। আপনি কিংবা আপনার সঙ্গী দু’জনের ক্ষেত্রেই যেন সে সুবিধা থাকে।

পরিচ্ছন্নতা- অপরিছন্নতাই বেশিরভাগ রোগের কারণ। তা আবার আপনার সঙ্গীর শারীরিক মিলনে উৎসাহ হারানোর কারণও হতে পারে। তাই মিলনের আগে যদি পারেন তো ভাল করে স্নান করে নেবেন। আর গোপনাঙ্গও পরিষ্কার রাখার চেষ্টা করবেন।

শৌচকর্ম- পড়তে একটু আজব লাগলেও এই কাজটি কিন্তু বেশ গুরুত্বপূর্ণ। যৌন সঙ্গমে লিপ্ত হওয়ার আগে অবশ্য শৌচকর্ম করে নেবেন। আবেগের সময় প্রকৃতির ডাক না আসাই ভাল। তাতে যৌনক্রিয়া বিঘ্নিত হতে পারে।

এই পাঁচ উপায়েই আপনার যৌনতা হোক পরমানন্দের। সুস্থ থাকুন, সুস্থ রাখুন। আর মনের মানুষের শরীরকে উপভোগ করুন।

Leave A Reply

Your email address will not be published.