২১শে ফেব্রুয়ারি, ২০১৮ ইং, ৯ই ফাল্গুন, ১৪২৪ বঙ্গাব্দ, ৫ই জমাদিউস-সানি, ১৪৩৯ হিজরী

সৌদিতে আবারো ভয়াবহ ক্ষেপণাস্ত্র হামলা !!

জানুয়ারি ৩১, ২০১৮, সময় ৩:৫৫ অপরাহ্ণ

ফের হুথি সন্ত্রাসবাদীদের নিশানায় রিয়াদ৷ এবার ক্ষেপণাস্ত্র ছোঁড়া হল রিয়াদের কিং খালিদ আন্তর্জাতিক বিমানবন্দর লক্ষ্য করে৷ সাবা সংবাদসংস্থা সূত্রে অন্তত তেমনই খবর৷ এই নিয়ে দ্বিতীয়বার হুথি বিদ্রোহীদের নিশানায় রিয়াদের বিমানবন্দর৷

মঙ্গলবার দূরপাল্লার ক্ষেপণাস্ত্র ছোঁড়ে বিদ্রোহীরা৷ এখনও পর্যন্ত এই হামলা থেকে হতাহতের কোনও খবর মেলেনি৷

এর আগে, গত ৪ নভেম্বর সৌদি সরকারের তরফে দাবি করা হয়, রিয়াধের কিং খালেদ বিমানবন্দরের দিকে ধেয়ে আসা একটি ব্যালিস্টিক ক্ষেপণাস্ত্র আকাশেই রুখে দিয়েছে সৌদি সেনাবাহিনী।

সৌদি আরবের রাজপ্রাসাদ লক্ষ্য করে ব্যালিস্টিক মিসাইল ছোঁড়ে ইরানের মদতপুষ্ট ইয়েমেনের হুথি সন্ত্রাসবাদীরা। তবে লক্ষ্যে পৌঁছনোর আগেই রিয়াধের রাজপ্রাসাদকে তাক করে ছুটে আসা সেই ব্যালিস্টিক ক্ষেপণাস্ত্র মাঝপথে রুখে দিতে পেরেছে সৌদি সেনাবাহিনী।

সংবাদ সংস্থা রয়টার্স ও সৌদি আরবের সরকারি সংস্থা সেন্টার ফর ইন্টারন্যাশনাল কমিউনিকেশন্সের তরফে মঙ্গলবার একটি টুইটে ওই খবর দেওয়া হয়েছে। ইয়েমেনের হুথি সন্ত্রাসবাদীরাও ওই ক্ষেপণাস্ত্র হানাদারির দায়িত্ব স্বীকার করেছে। সেবার প্রথম তারা সৌদির রাজধানীকে টার্গেট করে।

রিয়াদের বাসিন্দারা জানিয়েছেন, শহরের উত্তরে কিং খালিদ আন্তর্জাতিক বিমানবন্দরের কাছে বিস্ফোরণের বিকট আওয়াজ তারা শুনতে পায়েছিলেন৷ তবে বিস্ফোরণে বড় কোনও ক্ষতি কিংবা প্রাণহানির খবর মেলেনি তখনও৷

সৌদি আরবের সংবাদ সংস্থা জানিয়েছে, ইয়েমেনের অংশ থেকে ব্যালাস্টিক মিসাইলটি ছোড়া হয়েছিল রাজধানীকে লক্ষ্য করে।

জনবহুল এলাকাকে লক্ষ্য করেই মিসাইলটি ছোড়া হয়েছিল। আন্তর্জাতিক বিমানবন্দর এলাকায় বিস্ফোরকের টুকরো ছড়িয়ে পড়ে থাকতে দেখা দিয়েছে। প্রায় ১২০০ কিমি দূরে ইয়েমেনের এলাকা থেকে হুথি বিদ্রোহীরা এই মিসাইল ছোড়ে। জুলাই মাসে ইয়েমেন থেকে একটি ব্যালাস্টিক মিসাইল ছোড়া হয়েছিল। যদিও সেটি তখন ধ্বংস করে দেওয়া হয়৷

রিয়াদের অভিযোগ, সৌদিকে অস্বস্তিতে রাখতে ইরান সরকার হুথি সন্ত্রাসবাদীদের নিয়মিতভাবে ক্ষেপণাস্ত্র জুগিয়ে যাচ্ছে। তেহরানের তরফে অবশ্য সেই অভিযোগ অস্বীকার করা হয়।